গরমে তরতাজা থাকতে খান লিচু-আদার শবরত

গরমে তরতাজা থাকতে খান লিচু-আদার শবরত

হাইলাইটস

  • বাইরে ঝাঁ ঝাঁ রোদ। দুপুরের দিকে তো অবস্থা আরও শোচনীয়।
  • আংশিক লকডাউনের কারণে বাইরে যাওয়া বন্ধ হওয়ায় একদিকে নিশ্চিন্ত হলেও ঘরের গরমের সঙ্গেও পাল্লা দেওয়া কঠিন।
  • এসি ছাড়া এক দণ্ডও থাকা যায় না।

এই সময় ডিজিটাল ডেস্ক: বাইরে ঝাঁ ঝাঁ রোদ। দুপুরের দিকে তো অবস্থা আরও শোচনীয়। আংশিক লকডাউনের কারণে বাইরে যাওয়া বন্ধ হওয়ায় একদিকে নিশ্চিন্ত হলেও ঘরের গরমের সঙ্গেও পাল্লা দেওয়া কঠিন। এসি ছাড়া এক দণ্ডও থাকা যায় না। এদিকে সারাক্ষণ এসি থাকা স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর। একে গরম তায় আবার কৃত্রিম ঠান্ডা হাওয়ার জেরে শরীর শুষ্ক হওয়ার প্রবণতা বেড়ে যাচ্চে। অথচ শরীরে জলের প্রয়োজন মারাত্মক। ফ্রিজের ঠান্ডা জল খাওয়া আপাতত বারণ। তাই সাধারণ উষ্ণতার জল খেতে হচ্ছে। কিন্তু শান্তি মিলছে না। তার উপর রয়েছে ওয়ার্ক ফ্রম হোমের চাপ। সব মিলিয়ে নাস্তানাবুদ অবস্থা।

এরই মাঝে যদি শরবতের একটা দারুণ রেসিপি পাওয়া যায় তাহলে কেমন হয়? লিচুর শরবত। গরমের প্রধান ফল আম-জাম-কাঁঠালের পরেই যার নাম বাঙালির মুখে আসে সেই লিচু দিয়ে দারুণ সুস্বাদু শরবত তৈরি করা যায়। সঙ্গে সামান্য আদা এবং তুলসী পাতা। তাহলেই গরম কুপোকাত। সানস্ট্রোক প্রতিহত করতে এই শরবতের জুড়ি মেলা ভার। বর্ষায় অপেক্ষায় যাঁরা দিন গুনছেন তাঁরা নিয়মিত নিজেদের ডায়েটে এই শরবত রাখতে পারেন। অন্তত বর্ষা আসা পর্যন্ত শরীরকে প্রাকৃতিক উপায়ে ঠান্ডা রাখতে সাহায্য করবে এই শরবত।

স্বাদের দিক দিয়ে লিচুর কোনও তুলনা হয় না। তার উপর লিচুর খাদ্যগুণও যথেষ্ট। এই ছোট্টো ফলটির অন্তত পক্ষে ৮১ শতাংশই জল। তাই শরীরের জলের ঘাটতি পূরণ করার জন্য এই ফল আদর্শ। এর প্রাকৃতিক কার্বোহাইড্রেটের কারণে এর স্বাদও বেশ মিষ্টি। গরমের মোকাবিলায় লিচুর তুলনা নেই। অন্যদিকে আদায় আছে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, তামা এবং ম্যাঙ্গানিজ। অর্থাৎ এর পুষ্টিগুণও অতুলনীয়। আদা হজমশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। জ্বর, সর্দি-কাশি প্রতিরোধ করে।

করোনাকালে ফিট থাকতে ডায়েটে রাখুন ইমিউনিটি বুস্টার হালুয়া! শেখাচ্ছেন করিনা কাপুর খানের ডায়েটিশিয়ান

এই শরবতে দিতে হয় তুলসী পাতা। এই পাতার ভেষজ গুণ সম্পর্কে কমবেশি সকলেই জানেন। সর্দি-কাশি কিংবা ঠান্ডা লাগায় তুলসী পাতা দারুণ উপকারী। পেটের কৃমি বা বায়ুরোগ দূর করতে তুলসী পাতা অনবদ্য।
তাহলে এই গরমে শরীর এবং মনকে তরতাজা করতে লিচু-আদার শরবতের রেসিপিটা একবার চোখ বুলিয়ে নেওয়া যাক।

উপকরণ
লিচু, আদা, তুলসীপাতা, গুড়, ঠান্ডা জল, বরফের টুকরো (অপশনাল)

পদ্ধতি
লিচুগুলির খোসা ছাড়িয়ে বীজ আলাদা করে নিন। আদার খোসা ছাড়িয়ে খুব ভালো করে পরিষ্কার করে পাতলা স্লাইস করে কেটে নিন।
কিছু তুলসী পাতা গোটা রাখুন। আর কিছু পাতা মিহি করে কুচিয়ে নিন। সামান্য গুড় ভালো করে জলে গুলে নিন।

এবার একটি পাত্রে লিচু, তুলসী পাতা, গুড়ের জল এবং ঠান্ডা জল দিয়ে খুব ভালো করে ব্লেন্ড করুন। শরবত কতটা ঘন করবেন সেই মতো আন্দাজ করে জল দেবেন। তাছাড়া লিচুর রসও অনেকটা থাকবে। বেশি জল দিলে আবার লিচুর স্বাদ ভালোমতো পাওয়া যাবে না। এবার আদার স্লাইস অল্প থেঁতো করে মিশ্রণে ফেলে দিন। ফ্রিজে অন্তত একঘণ্টা মিশ্রণটি রেখে দিন। সরাসরি ফ্রিজ থেকে বের করে না খেয়ে একটু স্বাভাবিক উষ্ণতায় এলে তবেই শরবত পান করা উচিত। শরবতটি খাওয়ার আগে গ্লাসে তুলসীপাতার কুচি দিয়ে গার্নিশ করে নিন। ইচ্ছে হলে শরবতে বরফের কুচি দেওয়া যায়। তবে তা এড়িয়ে চলাটাই স্বাস্থ্যের পক্ষে ভালো।

পুদিনার স্বাদ পছন্দ করলে গার্নিশিং-এর সময় তুলসীর সঙ্গে পুদিনা পাতার কুঁচি দিয়ে দিতে পারেন। লিচু-আদার এই শরবত ছোটো বড় সকলের ভালো লাগবে।

তবে মনে রাখবেন শরীর সুস্থ রাখতে জলের কোনও বিকল্প হয় না। এই প্রচণ্ড গরমে দিনে কমপক্ষে তিন লিটার জল খেতেই হবে। তবে সবসময় জল খেলে মন না চাইলে লিচুর শরবত খাওয়া যেতেই পারে। দিতে অন্তত একবার এই লিচু-আদার শরবত খেলে শরীরে জলের ঘাটতি দূর হবে। জিভের স্বাদ পূরণ হবে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও অনেকটা বাড়বে। করোনা প্রতিরোধে এটাই এখন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপায়।

Lifestyle News in Bengali, লাইফস্টাইল খবর, Health Tips, Fashion Trends and Tips in Bangla
2021-05-07 17:34:27
Source link

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *