জিম ঘরে শরীর কমানোর প্রক্রিয়াটা বিশ্বব্যাপি জনপ্রিয় হয়ে উঠলেও সংসারের জাগতিক ব্যস্ততায় ফুরসৎ পাওয়া দুষ্কর। আর তাই কর্মজীবি মানুষদের জন্য ঘটা করে জিমে ভর্তি হওয়া হলেও প্রতিনিয়ত সেখানে হাজিরা দেয়া সম্ভব হয় না। এমন মানুষদের নিজেদের ফিট রাখতে সবচেয়ে প্রয়োজনীয় ফ্রিহ্যান্ড ব্যায়াম।

মেদভুড়ি কমাতে কিংবা নিজেকে সবসময় ফিট রাখতে সবচেয়ে জরুরি হচ্ছে ব্যায়াম। এখন ঢাকা শহরে ব্যায়াম করার বেশ কিছু ভালো জায়গা তৈরি হয়েছে যেখানে অর্থের বিনিময়ে আধুনিক ব্যায়ামের যন্ত্র ব্যবহার করে শরীর ফিট রাখা যায়। কিন্তু দশটা – পাচটা অফিস আর সাংসারিক বিড়ম্বনা সয়ে দৈনন্দিন রুটে জিম সংযোগ করতে অনেকেই হিমশিম খান। ফলে দেখা যায়, জিমে যাওয়ার ব্যাপারটা কেবল মাসে মাসে জিম ভাড়া দেয়ার মাঝেই সীমাবদ্ধ থাকে। আর তাই নিজেকে ফিট রাখতে সবচেয়ে কার্যকর হচ্ছে ফ্রিহ্যান্ড ব্যায়াম। প্রতিদিন একটা ফ্রি সময়ে কিছুটা ফ্রিহ্যান্ড এক্সারসাইজ প্রত্যেকেরই করা উচিত। এতে আপনি শারীরিক ও মানসিক দুই দিক থেকেই প্রফুল্ল থাকবেন। ফ্রিহ্যান্ড ব্যায়ামের জন্য তেমন কোনো নিয়ম মেনে চলা দরকার হয় না। তবে ব্যায়ামের নিয়মগুলো একজন এক্সপার্ট থেকে জেনে নিন। নাচ, দৌড়ানো, সাঁতার কাটা, এরোবিক্স, সিড়ি দিয়ে উঠানামা এসবই এক ধরনের ফ্রিহ্যান্ড ব্যায়াম। এগুলো থেকে আপনার পছন্দের ব্যায়ামটি বেছে নিন। মনে রাখবেন, ফ্রিহ্যান্ড ব্যায়ামের ফল আপনি ১-২ সপ্তাহে পাবেন না। এর ফল পেতে সময় লাগবে। তবে জিমে গিয়ে ধুন্ধুমার ব্যায়ামে তৈরি ফিটনেস কিন্তু একটু আড়ষ্টতায় ভেঙ্গে যেতে পারে। কিন্তু ফ্রিহ্যান্ড ব্যায়ামের ফল মাটি হতে সময় লাগে। তাই এমন ব্যায়াম সবসময়ের অভ্যাসে রাখতে চেষ্টা করুন। ফিটনেস রুটিন তৈরি করে নিন। ঠিক করুন কি ধরনের ব্যায়মগুলো আপনি করবেন। একেক দিন একেক রকম ব্যায়াম করলে আপনার ফিটনেস লক্ষ্য পিছিয়ে যাবে। চেষ্টাকরুন একটা ব্যায়াম ততদিন পর্যন্ত করার, যতদিনে আপনার লক্ষ্যমাত্রা অর্জন না হয়। ফ্রিহ্যান্ড ব্যায়ামে মেদ ঝরার পাশাপাশি হৃৎপিন্ড এবং ফুসফুস এর কার্যকারিতা বৃদ্ধি পায়। ব্লাডপ্রেশার নিয়ন্ত্রণ এবং ঘুমের সমস্যা কমাতে অনেক বেশী কার্যকর ফ্রিহ্যান্ড ব্যায়াম। সবচেয়ে বড় উপকার ফ্রিহ্যান্ড ব্যায়াম দুশ্চিন্তা কমিয়ে নিজেকে প্রফুল্ল রাখতে সহায়তা করে। কিছু সহজ স্ট্রিচিং ব্যায়াম শিখে নিন। এগুলো ফ্রিহ্যান্ড ব্যায়াম হিসেবে খুব ভাল। জিমে যাবার অভ্যাস থাকলেও ফ্রিহ্যান্ড করুন ইন্সট্রুমেন্ট ব্যায়াম শুরু করার আগে।

সূত্র: দৈনিক ইত্তেফাক, মে ১৮, ২০১০

Share This
%d bloggers like this: